ছেলেদের ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধির উপায়

প্রিয় পাঠক আপনি কি ছেলেদের ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধি করতে চান? জানতে চান কোন উপায়ে ছেলেদের ত্বক উজ্জল করা যায়? তাহলে আমাদের বলা আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়ুন। আমরা আজকের আর্টিকেলে  ছেলেদের ত্বক উজ্জল করার উপায়, কি খেলে ত্বকের উজ্জলতা বাড়ে, ত্বকের উজ্জলতা বাড়াতে কি ক্রিম ব্যবহার করা যায় এসব সম্পর্কে আলোচনা করবো। কথা না বাড়িয়ে চলুন শুরু করি বিস্তারিত আলোচনা।

ছেলেদের ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধির উপায়

সুন্দর ত্বক আমরা সবাই চাই। সে ছেলে হক কিংবা মেয়ে। অনেকেই মনে করেন রুপচর্চা মেয়েদের বিষয়। এটি ভূল কথা। ছেলেরাও চায় সুন্দর ও উজ্জল ত্বক। সারাদিন কাজ, ধুলাবালি, প্রখর রোদে বের হওয়া, স্বাস্থকর খাবার না খাওয়া, পর্যাপ্ত ঘুমের অভাব বিভিন্ন কারনে ত্বকের উজ্জলতা নষ্ট হয়ে যায়। সঠিকভাবে ত্বকের যত্ন নিলে ত্বকের উজ্জলতা বাড়ানো যায়। চলুন বিস্তারিত জেনে নিই কি কি উপায় অবলম্বন করলে ছেলেরা ত্বকের উজ্জলতা ফিরে পাবে।

ছেলেদের ফর্সা হওয়ার প্রাকৃতিক উপায়

মসৃন উজ্জল ত্বক সবার প্রিয়। কিন্তু বিভিন্ন কারনে মসৃন ও উজ্জল ত্বক হারিয়ে যায়। সঠিক পরিচর্যায় পারে ত্বককে ভেতর থেকে উজ্জল ও ফর্সা করতে। প্রাকৃতিক ভাবে ত্বকের যত্ন নিলে ছেলেদের ত্বক উজ্জল করা যায়। চলুন জেনে কোন কোন প্রাকৃতিক উপাদানের মাধ্যমে ফর্সা হওয়া যায়।

  • সকালে ঘুম থেকে উঠে ভালোভাবে ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। ভালো মানের ফেসওয়াশ ব্যবহার করতে হবে যাতে আপনার ত্বকের সাথে ম্যাচ করে। 
  • লেবুতে থাকে সাইট্রিক এসিড যা ত্বকের অতিরিক্ত তেল বের করে ত্বককে ভেতর থেকে পরিষ্কার করে। একটি লেবুকে কেটে খোসাসহ মুখে মাসাজ করুন। কিছ্ক্ষুন মাসাজ করার পর পানি দিয়ে পরিষ্কার করে নিন। 
  • কমলার খোসাকে ভালোভাবে শুকিয়ে পাউডার করে নিন। এরপর ১ চা চামচ কমলার খোসার পাউডার ও ৪ টেবিল চামচ কাঁচা দুধ একসাথে ভালো করে মিশিয়ে স্ক্রাব তৈরি করে নিন। স্ক্রাবটি ভালোভাবে মুখে লাগিয়ে ২০ মিনিট মতো অপেক্ষা করুন। এরপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। আপনার ত্বককে ভেতর থেকে ময়েশ্চারাইজার করবে। 
  • টমেটো ব্লেন্ড করে রস বের করে নিন। এরপর টমেটোর রসের সাথে ১ চা চামচ টক দই, আধা চা চামচ মধু ও ২ চা চামচ বেসন একসাথে ভালো করে মিশিয়ে মিশ্রন তৈরি করে। মিশ্রনটি মুখে লাগিয়ে ২০ মিনিট মতো অপেক্ষা করে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এতে ত্বক উজ্জল করবে। 
  • আলুর রস ত্বকের জন্য বেশ উপকারি। নিয়মিত মুখে আলুর রস ব্যবহার করুন  ত্বক মসৃন ও উজ্জল দেখাবে। 
  • কাঁচা হলুদকে ব্লেন্ড করে তার সাথে চন্দদের গুঁড়া ভালোভাবে মিশিয়ে আপনার মুখে লাগিয়ে নিন। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত করলে আপনার মুখের কালচেভাব দূর হবে। 
  • শসা ত্বকের জন্য খুই উপকারি একটি উপাদান। শশার রস মুখে লাগিয়ে ৫ মিনিট মতো রাখার পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। 
  • বেসন, দুধ এবং লেবুর রসকে একসাথে ভালোকরে মিশিয়ে। মুখে লাগিয়ে ১৫ মিনিট মতো অপেক্ষা করুন। এরপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। আপনার ত্বক উজ্জল দেখাবে। 
  • হলুদ ও টমেটোর ফেইস প্যাক বানিয়ে মুখে লাগিয়ে নিন। ত্বক উজ্জল করবে অল্পদিনেই। 
  • দুধ ও লেবুর রস এবসাথে ভালোকরে মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে নিন। শুকানোর পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। 

উপরের টিপসগুলো নিয়মিত করার চেষ্টা করবেন। এছারা অতিরিক্ত রোদে বের হলে সতর্কতার সাথে বের হবেন। পর্যাপ্ত পরিমান পানি পান করবেন। 

আরো পড়ুন: গরমে তৈলাক্ত ত্বকের যত্ন - গরমে ত্বকের যত্ন কিভাবে নিবেন

ছেলেদের মুখের উজ্জলতা বৃদ্ধির ফেসওয়াশ

সারাদিন কাজের চাপ, অতিরিক্ত রোদ, গাড়ির কালো ধোয়া, মানসিক চাপ ত্বকের উপর প্রভাব পড়ে। ত্বক রুক্ষ, শুষ্ক হয়ে যায়। তবে যত্ন নিলে সুন্দর ত্বক ফিরে পাওয়া যায়। ত্বকের যত্ন নিতে ঘরোয়া উপায়ের পাশাপাশি ফেসওয়াশ খুবই কার্যকরি একটি উপাদান। এটি ত্বকের তৈলাক্ত ভাব দূর করে ত্বককে ভেতর থেকে মসৃন ও উজ্জল করে তুলে। ছেলেদের ও মেয়েদের ত্বকের মধ্যে পার্থক্য রয়েছে। তাই ত্বকের যত্ন নিতে আলাদা আলাদা ফেসওয়াশ ব্যবহার করা ভালো। ছেলেরা আপনারা আপনাদের ত্বককে উজ্জল করতে চাইলে ছেলেদের জন্য ব্যবহৃত ফেসওয়াশ কিনবেন। নিচে কয়েকটি ফেরওয়াসের নাম বলছি যেগুলো আপনি ব্যবহার করতে পারবেন। 

নিউট্রেজিনা ম্যান স্কিন ক্লিয়ারিং একনি ওয়াশ ফেসওয়াশ: এ ফেসওয়াসটি ব্যবহারের ফলে ত্বকের ব্রনের দাগ দুর করবে, ত্বকের রুক্ষ ও তৈলাক্তভাব দূর করে ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধি করে। এ ফেসওয়াশটির পরিমান ১৫০ মিলি এবং এর মুল্য ৯৬০ টাকা। 

গার্নিয়ার পাওয়ারলাইট ইন্টেন্সিভ ফেয়ার নেস ফেসওয়াশ: এ ফেসওয়াশটি আঙ্গুরের রস ও লেবুর মিশ্রনে তৈরি। এটি ব্যবহারে ত্বকের তেলতেলে ভাব দূর করে ত্বককে মসৃন ও উজ্জল করে। এ ফেসওয়াশের পরিমান ১০০ গ্রাম এবং এর দাম ২৬০ টাকা।

ফেয়ার এন্ড লাভলি ম্যাক্স ফেয়ারনেস ফেসওয়াশ: পুরুষদের শক্ত ত্বকের জন্য এ ক্রিমটি তৈরি করা হয়েছে। এটি ব্যবহারে ছেলেদের ত্বকের তৈলাক্ত ভাব দূর করে ত্বককে মসৃন করে রাখে। এ ফেসওয়াশের পরিমান ৫০ গ্রাম এবং দাম ১৮৫ টাকা।

হিমালয়া পাওয়ার গ্লো লিসোরাইস ফেসওয়াশ: এ ফেসওয়াশ ব্যবহারে ত্বকের মৃত কোষগুলোকে নতুন করে তোলে। স্কিনের উজ্জলতা বৃদ্ধি করে। এ ফেসওয়াশের পরিমান ৫০ মিলি এবং দাম ১৮০ টাকা। 

এভারইয়ুথ ম্যানজ পলুশন ডিফেন্স ফেসওয়াশ: এ ফেসওয়াশটি স্কিনের তৈলাক্ত ভাব দূর করে। স্কিনে থাকা ছিদ্র দুর হয়। ত্বককে পরিষ্কার ও উজ্জল দেখায়।  এ ফেসওয়াসের পরিমান ১০০ গ্রাম এবং দাম ৮০ টাকা। 

গার্নিয়ার মেন পাওয়ার হোয়াইট ডাবল অ্যাকশন ফেইসওয়াশ: এ ফেসওয়াসটি স্যালিসাইলিক অ্যাসিড এবং ভিটামিন সি রয়েছে। যা ত্বকের জন্য বেশ উপকারি। এটি ত্বকের অতিরিক্ত অয়েল কন্ট্রোল করে ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধি করে। 

ভি এল সি সি ম্যান এক টিভ লাইট ফেসওয়াশ: এ ফেসওয়াশটি ত্বকের জন্য বেশ উপকারি এটি ব্যবহারে ত্বকের উজ্জলতা ফিরে আসে। 

রাস্টিক আর্র্ট অরগ্যানিক জুনিপার বেরি ফেসওয়াশ: এ ফেসওয়াসটি ব্যবহার করলে ত্বকের আদ্রতা বজায় থাকে ও ত্বককে পরিষ্কার রাখে।  

অরিফ্লেম নর্থ ফর ম্যান এক্টিভ ফেয়ারনেস ফেস ওয়াশ: এ ফেসওয়াসটি স্কিনের অতিরিক্ত তেল ও ময়লা দূর করে এবং ত্বককে উজ্জল করে তোলে। এ ফেসওয়াশের পরিমান ১৫০ মিলি এবং দাম ৫৮০ টাকা। 

পন্ডস ম্যান অয়েল কন্ট্রোল ফেস ওয়াশ: এ ফেনওয়াশটি স্কিনের তেলতেলে ভাব দূর করে এবং ত্বকের ভারসাম্য বজায় রাখে। মুখের বিভিন্ন দাগ, ব্রন থেকে  রক্ষা করে। ত্বককে ময়েশ্চারাইজার করে তোলে। এ ফেসওয়াশের পরিমান ৫০ গ্রাম এবং এর দাম ১৪০ টাকা। 

সাবধানতার সাথে ফেসওয়াশ কিনবেন এবং ব্যবহার করবেন। আপনার ত্বকের সাথে ম্যাচ করবে এমন ফেসওয়াশ দেখে কিনবেন। অতিরিক্ত ফেসওয়াশ ব্যবহার করা মুখের জন্য ক্ষতিকর। এর ফলে আপনার ত্বক উজ্জল না হয়ে বিপরিতে ত্বকের বিভিন্ন  ক্ষতি হতে পারে। সকালে ঘুম থেকে উঠে একবার এবং রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে ফেসওয়াশ ব্যবহার করবেন। তাহলে ফেসওয়াশ ব্যবহারে আপনার ত্বকের কোনো ক্ষতি হবে না।

ছেলেদের ফর্সা হওয়ার ডাক্তারি ক্রিম

ছেলেদের ত্বকে ব্যবহার করা যায় এমন কিছু ক্রিম রয়েছে। যেগুলো ব্যবহারে ছেলেদের ত্বকের উজ্জলতা বাড়ে। বর্তমানে মেয়েদের পাশাপাশি ছেলেরাও চাচ্ছে তাদের ত্বক উজ্জল ও ফর্সা করে আকর্ষনীয় হতে। ফর্সা হওয়ার অনেক ক্রিম রয়েছে তবে সব ক্রিম ত্বকের জন্য ভালো নয়। নিচে ছেলেদের জন্য সাতটি ক্রিমের নাম বলছি যেগুলো ডাক্তাররা ব্যবহার করতে দেন। 

  • BILUMA Cream
  • Darmadwe Glwo Cream
  • Himalaya Herbal Night Cream
  • Lotus Night Cream 
  • Biotique Night Cream
  • Garnier Skin Naturals Light Complete Serum Cream 
  • Kojie San Kojic Acid Cream

ছেলেরা যারা ত্বক ফরসা করতে চাইছেন। তারা উপরের ক্রিমগুলো ব্যবহার করতে পারেন। তবে সতর্ক থাকতে হবে। দীর্ঘ সময় ধরে এসব ক্রিম ব্যবহার করা যাবে না। দীর্ঘ সময় ধরে ব্যবহার করলে আপনার ত্বকের বিভিন্ন ক্ষতি হতে পারে। চর্মোরোগের সৃষ্টি হতে পারে। আর সবার ত্বক একই রকম নয়। তাই ডাক্তরের পরামর্শ নিয়ে কোন ক্রিম আপনার ত্বকের যোগ্য সেটা জেনে ক্রিম ব্যবহার করুন।

আরো পড়ুন: স্থায়ীভাবে শ্যামলা ত্বক ফরসা করার উপায়

ছেলেদের ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধির খাবার

ভালো ও পুষ্টিকর খাবার ছেলেদের ত্বকের কালো দাগ ছোপ, ব্রন ও তেলতেলে ভাব দূর করে ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধি করে। খাদ্যভাসের মাধ্যমে ত্বকের সৌন্দর্য ঠিক রাখা যায়। কিছু খাবার আছে যেগুলো  গ্রহনের ফলে ছেলেদের ত্বকের উজ্জলতা বজায় থাকে। চলুন জেনে নেওয়া যাক ছেলেদের ত্বক উজ্জল করতে কি কি খাবার খেতে হবে।

পানি: সুন্দর ত্বকের জন্য পানি পান করা জরুরি। এর জন্য ছেলেরা দৈনিক ২ থেকে ৩ লিটার পানি পান করবেন। 

গাজর: নিয়মিত গাজর খেলে আপনার ত্বক হবে ব্রনমুক্ত উজ্জল ত্বক। ক্ষতিকর সূর্যরশ্মির হাত থেকে আপনার ত্বককে রক্ষা করে গাজর। 

শসা: ত্বকের জন্য খুবই উপকারি শসা। নিয়মিত শসা খেলে আপনার ত্বকের বয়সের ছাপ দূর করে এবং স্কিনকে হাইড্রেট রাখে। 

ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার: ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার নাশপাতি, বাদাম, মটরশুঁটি খেলে ত্বক সুস্থ থাকে। 

পালংশাক: স্কিনের জন্য খুবই উপকারি একটি সবজি। স্কিনের তারুন্যও বজায় রাখে সেই সাথে ত্বককে উজ্জল করে। 

ভিটামিন সি জাতীয় খাবার: লেবু, কমলা, মোসাম্বি, মাল্টা এগুলো ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধি করে। ত্বককে ন্যাচরালি ব্রাইট করতে সাহায্য করে।

মাছ: ত্বকের উজ্জলতা বাড়াতে নিয়মিত  মাছ খাবেন। আপনার খাদ্য তালিকায় ওমেগো থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড সমৃদ্ধ মাছ রাখবেন। 

মসলা জাতীয় খাবার: মসলা জাতীয় খাবারের মধ্যে দারুচিনি ও জিরা ত্বক ভালো রাখতে সাহায্য করে। শরীরে দূষিত পদার্থের পরিমান বেড়ে গেলে ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয়। জিরা খেলে এ সমস্যা দূর হয়। আর দারুচিনিতে রয়েছে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল উপাদান। এ উপাদান ত্বকে ব্রনের হাত থেকে রক্ষা করে। 

ডার্ক চকলেট: ডার্ক চকলেট ত্বকের জন্য উপকার। এটি খেলে ত্বক সুস্থ ও সুন্দর করে। 

অ্যাভোকাডো: অ্যাভোকাডোতে আছে ওমেগো থ্রি এর মতো ফ্যাট যা ত্বককে কোমল ও উজ্জল করতে কাজ করে। 

টকদই: স্কিনকে ভালো রাখতে টকদই খুবই কার্যকরী উপাদান। আপনি ত্বককে ভালো রাখতে আপনার খাদ্য তালিকায় টকদই রাখতে পারেন। 

ডিম: রুক্ষ ত্বকে ডিম খাওয়ার উপকারিতা অনেক। ডিমের সাথে ডিমের কুসুম খাওয়া ত্বকের জন্য ভালো। কুসুমে ফ্যাট বেশি থাকে যা ত্বকের জন্য উপকারি।

ত্বকের উজ্জলতা বাড়াতে উপরের খাবার গুলো আপনার খাদ্যতালিকায় রাখবেন। অনেক খাবার আছে যেগুলো খেলে ত্বকের ক্ষতি করে সেগুলো খাবার আপনার খাদ্য তালিকা থেকে বাদ দিতে হবে। অতিরিক্ত চিনিযুক্ত খাবার, তেল মসলাযুক্ত খাবার আপনার ত্বকের তৈলাক্ত ভাব আরও বাড়িয়ে দেয়। এছারাও প্রখর রোদ থেকে ত্বককে রক্ষা করতে হবে। প্রতিদিন পর্যাপ্ত ঘুম ত্বককে সুরক্ষা রাখে। 

ছেলে ও মেয়েদের তৈলাক্ত ত্বক ফরসা করার উপায়-

ত্বকের মধ্যে এক ধরনের গ্রন্থি থাকে। যার নাম সেবিয়াস গ্রন্থি। এই সেবিয়াস গ্রন্থি থেকে অতিরিক্ত সিবাম উৎপাদন হয় যার জন্য ত্বক তৈলাক্ত হয়। তৈলাক্ত ত্বক নিয়ে আমরা প্রায় সবাই ভোগান্তিক। বাইরে বের হলেই তেলতেলে মুখে ধুলো ও ময়লা জমে একাকার। তবে সঠিক যত্নে এর সমাধান মিলবে। ঘরোয়াভাবে কিছু ফেইসপ্যাক তৈরি করে ছেলেদের ত্বকের তৈলাক্তভাব দূর করে মুখের উজ্জলতা ফিরিয়ে আনা যায়। আসুন ফেইপ্যাকগুলোর সাথে পরিচিত হয়। 

ব্যাসনের ফেইসপ্যাক: ২ চা চামচ বেসনের সাথে ৪ চা চামচ দুধ মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। এবার এই তৈরি প্যাক আপনার তৈলাক্ত মুখে লাগিয়ে ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। ত্বকের তৈলাক্ত ভাব দূর করবে। 

কমলার ফেইস প্যাক: কমলা লেবুর খোসাকে ভালোকরে শুকিয়ে পাউডার বানিয়ে নিন। এরপর পাউডারের সাথে ৪ চা চামচ দুধ, ১ চা চামচ হলুদ বাটা একসাথে মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে ১৫ মিনিট পর ধুয়ে নিন।  

শসার প্যাক: শসা ত্বকের জন্য খুবই উপকারি একটি উপাদান। শশাকে পেষ্ট করে তার সাথে ১  চা চামচ গোলাপজল এবং কয়েকফোঁটা লেবুর রস একসাথে নিয়ে ভালো করে মিশিয়ে আপনার মুখে লাগিয়ে নিন। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে নিবেন ত্বকের তৈলাক্ত ভাব দূর হবে। 

মসুর ডালের প্যাক: মসুর ডাল ভিজিয়ে রেখে ভেজানো মসুর ডাল বেটে আপনার মুখে লাগিয়ে নিন। শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। 

মধুর প্যাক: মধু ত্বকের উজ্জলতা বাড়ায় । মধুর ও লেবুর রস একসাথে ভালোকরে মিশিয়ে প্যাক বানিয়ে ফেলুন এরপর এটি মুখে লাগিয়ে কিছুক্ষন পর ধুয়ে নিন। 

ডিমের প্যাক: ডিমের সাদা অংশের সাথে মধু ও ময়দা ভালোভাবে মিশিয়ে মিশ্রন তৈরি করুন। এরপর মিশ্রনটি আপনার ত্বকে লাগিয়ে শুকানোর পর ধুয়ে নিবেন। ত্বকের তেলতেলে ভাব দূর করবে। 

মুলতানি মাটির ফেইসপ্যাক: মুলতানি মাটি, গোলাপ জল এবং অল্প একটু লেবুর রস সব উপকরন একসাথে ভালো করে মিশিয়ে মুখে লাগান। ১০ মিনিট পর ধুয়ে নিবেন। এর ফলে ত্বকের অতিরিক্ত তেল বের হয়ে ত্বক উজ্জল দেখাবে। 

নিমের ফেইস প্যাক: কয়েকটি নিম পাতা সিদ্ধ করে বেটে তার সাথে গোলাপ জল মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। প্যাকটি মুখে লাগিয়ে ১৫ মিনিট মতো অপেক্ষা করুন। এরপর মুখ পরিষ্কার করে নিন। ত্বকের তৈলাক্ত ভাব দূর করে ত্বক ফরসা করবে। 

কাজুবাদামের ফেইস প্যাক: কাজুবাদাম গুড়ো তেলতেলে ত্বকের জন্য খুবই উপকারি। ৩ চা চামচ কাজুবাদাম গুড়োর সাথে ২ চা চামচ মধু মিশিয়ে স্ক্রাব বানিয়ে নিন। স্কাবটি আপনার মুখে ভালোকরে লাগিয়ে নিন। শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। ত্বকের তৈলাক্ত ভাব চলে যাবে। 

টমেটোর প্যাক: টমেটো ত্বকের অতিরিক্ত তেল পরিষ্কার করে। ১ টি টমেটো রসের সাথে ১ চা চামচ চিনি মিশিয়ে ত্বকে মাসাজ করুন। ১০ মিনিট পর ধুয়ে নিন। ত্বকের তৈলাক্ত ভাব দূর করবে।

উপরের ফেইসপ্যাকগুলো আপনার ত্বকের তৈলাক্ত ভাব দূর করবে। ত্বককে ব্রনের হাত থেকে রক্ষা করবে এবং ত্বক উজ্জল হবে। সপ্তাতে দুই থেকে তিন দিন মুখে প্যাকগুলো লাগার চেষ্টা করবেন। সাধারনত ছেলেদের ত্বক শক্ত হয়ে থাকে।  তাই তাদের ত্বকের তৈলাক্ত ভাব দূর করতে একটু বেশি সময় নেয়। তবে নিয়মিত যত্ন নিলে শক্ত ত্বকও সুন্দর হয়ে যাবে।

লেখকের শেষ বক্তব্য

ছেলেদের ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধির উপায় সম্পর্কে আজকের এই ব্লগে সকল তথ্য তুলে ধরার চেষ্টা করেছি। আশা করি ছেলেদের ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধির উপায় সম্পর্কে আপনি বিস্তারিত জানতে পেরেছেন।

এতক্ষণ আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। যদি আপনি এই ধরনের প্রয়োজনীয় বিভিন্ন ব্লগ পোস্ট নিয়মিত পড়তে চান তাহলে আপনাকে প্রতিনিয়ত আমাদের এই ওয়েবসাইট ফলো করতে হবে।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন